Technology

2 weeks ago

Tata Nano EV:বাজারে ফিরছে Tata Nano!300 কিলোমিটার রেঞ্জ সহ প্রিমিয়াম বৈশিষ্ট্য রয়েছে

Tata Nano EV
Tata Nano EV

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ দেশে বৈদ্যুতিক গাড়ির প্রতি গ্রাহকদের ঝোঁক ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। যদিও বর্তমানে পেট্রোল ও ডিজেল চালিত গাড়ির তুলনায় ইলেকট্রিক গাড়ির সেল অনেক কম। তবে মনে করা হচ্ছে যে EV এর দাম অনেক বেশি হওয়ায় এর সেল তুলনামূলক ভাবে পিছিয়ে আছে। সম্প্রতি সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক মন্ত্রী Nitin Gadkari নিজেই বলেছেন যে এক বছরের মধ্যে ইলেকট্রিক গাড়ির (EV) দাম পেট্রোল চালিত গাড়ির দামের সমান হবে। আপনি যদি এখন কোনও নতুন এবং বাজেটের মধ্যে ইলেকট্রিক গাড়ি কেনার কথা ভেবে থাকেন, তাহলে আজকের এই পোস্টে আমি আপনাদের ভারতের সবচেয়ে সস্তা ইলেকট্রিক গাড়ির সম্পর্কে জানাবো৷ মনে করা হচ্ছে, সব কিছু ঠিক থাকলে Auto Expo 2023 ইভেন্টেই এক ঝলক দেখানো হতে পারে Tata Nano EV-র। সেই এক ঝলক দেখার আগেই গাড়িটির সম্ভাব্য দাম, ফিচার ও স্পেসিফিকেশন সংক্রান্ত সব তথ্য একনজরে দেখে নেওয়া যাক।

Tata Nano EV: সম্ভাব্য ফিচার

সস্তার গাড়ির সবথেকে জরুরি বিষয় হল তার মাইলেজ। ইলেকট্রিক ভেহিকলের ক্ষেত্রে তা রেঞ্জ, অর্থাৎ একবার চার্জে ইভিটি কত কিলোমিটার দৌড়তে পারে। জানা গিয়েছে, Tata Nano EV একবার চার্জে 200 Km পর্যন্ত দৌড়তে পারে। একাধিক মিডিয়া রিপোর্ট থেকে এ-ও জানা গিয়েছে, কম দামি আসন্ন ইলেকট্রিক ভেহিকলটিতে 15.5 kWh লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি থাকতে পারে। যদিও এই ভেহিকলে ফাস্ট চার্জিং অপশন দেওয়া হবে কি না, সে বিষয়ে নির্দিষ্ট কোনও তথ্য এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি। তবে গাড়িটি একাধিক ভ্যারিয়েন্টে রিলিজ় করা হবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

সূত্রের খবর, গাড়িটির সর্বাধিক স্পিড 65 এবং 85 কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা হতে পারে। তিনটি ভিন্ন ড্রাইভিং মোড থাকবে গাড়িটির— ইকো, নর্মাল এবং স্পোর্টস। এছাড়া 7 ইঞ্চির টাচস্ক্রিন ইনফোটেনমেন্ট সিস্টেম থাকবে গাড়িটিতে, যা অ্যাপল কারপ্লে এবং অ্যান্ড্রয়েড অটো দুই মাধ্যমেই সাপোর্ট করবে। অন্যান্য সুবিধার মধ্য়ে Tata Nano EV-তে থাকতে পারে ব্লুটুথ, ইন্টারনেট অ্যাক্সেস, সিক্স-স্পিকার সাউন্ড সিস্টেম, পাওয়ার স্টিয়ারিং, পাওয়ার উইন্ডো এবং EBD সহযোগে অ্যান্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম।

বেশ বড় মিরর প্যানেল, ছোট হেডল্যাম্প, DRLs, সাইন প্যানেল থাকতে পারে গাড়িটিতে। আগের মতো গাড়িটির বাম্পার হতে চলেছে হ্যাপি শেপের। মনে করা হচ্ছে, Tata Nano EV-তে বেশ বড় হুইল থাকতে পারে। আর সেগুলি অ্যালয় হুইল হলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

Tata Nano EV: সম্ভাব্য দাম

যেমনটা আমরা আগেই বললাম, Tata Nano গাড়িটি যখন লঞ্চ করা হয়েছিল, তখন তা ছিল দেশের সবথেকে সস্তার পেট্রল গাড়ি। পরবর্তীতে গাড়িটির দাম বাড়িয়ে 1.5 লাখ টাকা করা হয়। সেখান থেকেই মনে করা হচ্ছে, Tata Nano EV-র দাম হতে পারে 2.70 লাখ টাকা থেকে 3 লাখ টাকার মধ্যে। বিশেষজ্ঞ মহল দাবি করছে, টাটা ন্যানো ইলেকট্রিক গাড়িটিই দেশের সবথেকে সস্তার ইভি হতে পারে।


You might also like!