Life Style News

1 week ago

Vitamin D: দিনের কোন সময়ে সূর্যের আলোয় দাঁড়ালে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়

Vitamin D can be obtained by standing in the sunlight at any time of the day
Vitamin D can be obtained by standing in the sunlight at any time of the day

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ দেহের মোট চাহিদার ৮০ শতাংশ ভিটামিন ডি সূর্যের আলো থেকেই পাওয়া যায়। সূর্যের আলোর সংস্পর্শে আসার পর ত্বক ভিটামিন ডি তৈরি করে। ফলে এটিই ভিটামিন ডির অন্যতম প্রধান উৎস।

আমাদের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি উপাদান হলো ভিটামিন ডি। সারা বিশ্বে এখন ভিটামিন ডির ঘাটতি একটি বড় সমস্যা। ডায়াবেটিস, প্রজনন সমস্যা থেকে শুরু করে হাড়ক্ষয় বা অস্টিওপেরোসিস, হৃদ্‌রোগ-স্ট্রোক, পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম ও দৈহিক স্থূলতারও কারণ হতে পারে ভিটামিন ডির ঘাটতি।

ভারতের মতো দেশে তো সূর্য রশ্মি কোনও অভাব নেই। তাহলে এখানকার অধিবাসীদের কী করে ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি থাকে? এই সঙ্গত প্রশ্নের উত্তরে বলা যায়, আমরা এখন বেশিরভাগ সময়ই বাড়ির ভিতর কাটাই। ফলে সূর্যের আলো দেহের স্পর্শ পায় না। তাই এই ভিটামিনের ঘাটতি তৈরি হচ্ছে।

ভিটামিন ডি শরীরে কম থাকলে অনেক জটিলতা দেখা দিতে পারে। হতে পারে গুরুতর কিছু অসুখ। তাই সচেতন থাকার চেষ্টা করুন। সূর্যের আলোকের মাধ্যমেই এই ভিটামিনের ঘাটতি মিটিয়ে ফেলুন।

১. কী ভাবে তৈরি হয় এই ভিটামিন?

আসলে আমাদের ত্বকের অন্দরে রয়েছে কোলেস্টেরল। এই কোলেস্টেরলের উপর এসে পড়ে সূর্যরষ্মি। তারপর তৈরি হয় ভিটামিন ডি। এই ভিটামিন ডি সরাসরি শরীর গ্রহণ করে। এতে হাড়ের স্বাস্থ্যের উন্নতি হয়। শরীরে ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি থাকলে ক্যালশিয়াম হাড়ের অন্দরে প্রবেশ করতে পারে না। ফলে হাড়ের ক্ষয় অনিবার্য হয়ে পড়ে। তাই চেষ্টা করুন যতই কষ্ট হোক না কেন সূর্যের আলোয় এসে দাঁড়াতে। তবেই সমস্যার সমাধান করতে পারবেন।

ভিটামিন ডি পেতে গেলে দুপুরের দিকে সূর্যের আলোয় দাঁড়াতে হবে। তাই খুব কম সময়েই আপনি ভিটামিন ডি-এর ভাণ্ডার পেয়ে যাবেন। ঘণ্টার পর ঘণ্টা রোদে দাঁড়ানোর কোনও প্রয়োজনই নেই। অল্প সময়েই ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি মিটে যাবে। আপনি সুস্থ থাকতে পারবেন।

দুপুরের দিকে মাত্র ১০ মিনিট সূর্যের আলোয় দাঁড়ালেই উপকার পাবেন। আর সর্বাধিক দাঁড়াতে পারেন ৩০ মিনিট। এর বেশি সময় একদমই দাঁড়ানোর প্রয়োজন নেই। এর থেকে জটিলতা তৈরি হতে পারে। বিশেষত, ভারতের মতো দেশে যেখানে সূর্যের আলোর তেজ অনেকটাই বেশি, সেখানে অতিরিক্ত কিছু করলেই সমস্যা তৈরি হয়। তাই বাড়াবাড়ি নয়।

গ্রীষ্ম ছাড়া সারা বছর দুপুরে রোদে দাঁড়াতে পারেন। তবে গ্রীষ্মের তপ্ত দুপুরে রোদে দাঁড়াতে যাবেন না। এতে সমস্যা তৈরি হতে পারে। তাই চেষ্টা করুন গ্রীষ্মের সময়ে একটু সকাল-সকাল বা বিকেলের দিকে আলতো রোদে বের হওয়ার। গরমকালে দুপুরবেলায় রোদ পোহাতে গেলে কিন্তু নানা বিপদের আশঙ্কা বাড়বে। হতে পারে গুরুতর কিছু শারীরিক সমস্যাও। এমনকী সানস্ট্রোক হওয়ার আশঙ্কাও দেখা দিতে পারে।

সূর্যের আলো থেকে ভিটামিন ডি পেতে গেলে শরীরের অনেকটা অংশ খোলা রাখতে হবে। সেক্ষেত্রে হাত, পা ঢেকে রাখবেন না। শরীরে এই দুটি অংশ খোলা রাখতে পারলেই পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন ডি তৈরি হবে। তবে অবশ্যই মুখ এবং শরীরের অন্যান্য সংবেদনশীল অংশ ঢেকে রাখতে ভুলবেন না। নইলে সেই অংশ পুড়ে যেতে পারে।

You might also like!