kolkata

3 weeks ago

Lok Sabha Election 2024:তাপস রায়ের বুথ এজেন্ট ও তাঁর ভাইয়ের বাইকে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ,বেলগাছিয়ায় অভিযুক্ত তৃণমূল

Tapas Rai booth agent and his brother allegedly set fire to bike, accused Trinamool in Belgaum
Tapas Rai booth agent and his brother allegedly set fire to bike, accused Trinamool in Belgaum

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ বুধবার গভীর রাতে বিজেপি নেতা ও তাঁর ভাইয়ের বাইক পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল। ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে উত্তর  কলকাতা লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত কাশীপুর–বেলগাছিয়ায়। টালা থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। ওই লোকসভার বিজেপি প্রার্থী তাপস রায়ের বুথ এজেন্ট তথা স্থানীয় বিজেপি নেতা তারক দাসের অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই তাঁর বাইক পুড়িয়ে দিয়েছে। পুড়ে গিয়েছে পাশে রাখা তারকের ভাইয়ের বাইকটিও।

ভোট আসছে কলকাতায়। তার উত্তাপ টের পাওয়া গেল বেলগাছিয়ায়। ঘটনাস্থল টালা থানা এলাকার জেকে মিত্র রোড। প্রতি রাতেই এই রাস্তায় পার্ক করা থাকে একাধিক বাইক। বুধবার রাতে সেখানেই পার্ক করা ছিল তারকের বাইকটিও। পাশে ছিল ভাইয়ের বাইকটি। অভিযোগ, রাত আড়াইটে নাগাদ আগুন ধরে যায় তারক এবং তাঁর ভাইয়ের বাইকে। তারক বলেন, ‘‘রাত আড়াইটে নাগাদ আচমকা আগুন লেগেছে বুঝতে পারি। বাইরে বেরিয়ে দেখি, আমার আর ভাইয়ের বাইক পুড়ছে। আমার ভাই কোনও রাজনীতি করে না। আমি বিজেপি করি। আমি তাপস রায়ের বুথ এজেন্ট। তাই আমার বাইকটি জ্বালিয়ে দেওয়া হল। আমরা যখন বুঝতে পারলাম, তখন দেখি বাইকগুলি অর্ধেক জ্বলে গিয়েছে।’’ টালা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তারক। তাঁর অভিযোগ, ২০২১ সালেও তৃণমূলের ভয়ে মাস তিনেক তাঁকে ঘরছাড়া থাকতে হয়েছিল। লোকসভা ভোটের মুখে আবার অত্যাচার শুরু হয়েছে। একটি দোকানও রয়েছে তাঁর। তারকের আশঙ্কা, সেই দোকানটিও পুড়িয়ে দেওয়া হতে পারে। তারকের অভিযোগের তির স্থানীয় তৃণমূল কর্মীদের দিকেই। কারণ, ওই রাস্তায় আরও একাধিক বাইক পার্ক করা থাকলেও কেবল বেছে বেছে তারক এবং তাঁর ভাইয়ের বাইকে আগুন লাগানো হয়।

সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। এলাকাটি কলকাতা পুরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডে অধীন। সেই ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর দেবিকা চক্রবর্তীর দাবি, বাইক রাখা নিয়ে আগেও ওখানে গোলমাল হয়েছিল। বাইক পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনাকেও দেবিকা সেই গোলমালের সঙ্গে যুক্ত করেছেন। তিনি বলেন, ‘‘আমি রাতেই খবর পেয়েছি যে, ওখানে একটি বাইক পুড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। রাতেই তাঁদের সঙ্গে কথা বলি, জানাই, সব রকম ভাবে পাশে আছি। বাইকের বিমা করা থাকলে ক্লেম করতেও বলি। ভোটের সময় বলে এই ঘটনায় রাজনৈতিক রং দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু রাজনীতির সঙ্গে এর কোনও যোগাযোগ নেই। আমাদের কাছে খবর আছে যে, বাইক রাখা নিয়ে ওখানে আগেও একাধিক বার বচসার ঘটনা ঘটেছিল। তার জেরেও এই ঘটনা ঘটতে পারে। কাশীপুর-বেলগাছিয়া অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ ওয়ার্ড। আমরা সবাই মিলে ভোটে তৃণমূল প্রার্থী সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বড় ব্যবধান নিশ্চিত করব। সেখানে এই ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটিয়ে কেন আমরা বিরোধীদের হাতে অস্ত্র তুলে দিতে যাব?’’

ঘটনায় টালা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তারক। যদিও এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ। কলকাতায় ভোটের আগে এই ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে।


You might also like!