kolkata

3 weeks ago

Bidhannagar Commissionerate: চোখের সমস্যার শিকার চালকেরা! উঠে এল বিধাননগর কমিশনারেটের পরীক্ষায়

Free Eye Test of drivers by Bidhannagar Commissionerate (Symbolic Picture)
Free Eye Test of drivers by Bidhannagar Commissionerate (Symbolic Picture)

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ মাস তিনেক আগের কথা, সল্টলেক সেক্টর ফাইভের টেকনোপলিস মোড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি বেসরকারি বাস ধাক্কা মারে প্রাইভেট গাড়িকে। ওই ঘটনায় কেউ গুরুতর জখম হয়নি। বাস চালকের সঙ্গে কথোপকথনে ট্র্যাফিক পুলিশের কর্মীরা জ্ঞাত হন চোখের সমস্যা শিকার সেই চালক। তবে কোনোরকম চিকিৎসার পথে হাঁটেননি তিনি। ভিআইপি রোডের একটি বাস দুর্ঘটনাতেও একই ভাবে উঠে আসে বাস চালকের চোখের সমস্যা।

তাই এবার বিধাননগর কমিশনারেট বাস, অটো, ট্যাক্সি চালকদের একটি সংস্থার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে বিনামূল্যে চক্ষু পরীক্ষার ব্যবস্থায় ব্রতী হয়। ওই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিলেন ১০০ জন চালক। এদের মধ্যে ৪০ জনেরই চোখে পাওয়ার রয়েছে এবং ৬০ জনই নিয়মিত চোখের পরীক্ষা করান না বলে উঠে এসেছে ওই পরীক্ষায়, এমনটাই পুলিশ সূত্রে খবর।

বিধাননগরই শুধু নয়। রাজ্যের সব জায়গাতেই একই সমস্যা। থচ পরিবহণ দপ্তরের নিয়ম বলছে, প্রতি ৬ মাস অন্তর বাস চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাটা জরুরি। কিন্তু, বেসরকারি বাসের ক্ষেত্রে এই নিয়ম কার্যকর হয় না বললেই চলে। যার জেরেই মাঝেমধ্যেই ঘটে দুর্ঘটনা। চালকরাও নিজে থেকে এ বিষয়ে উদ্যোগী হন না।

রাজ্য পুলিশের কর্তাদের পক্ষ থেকে বাস চালকদের এই সমস্যার কথা সম্প্রতি জানানো হয়েছে পরিবহণ মন্ত্রীকে। এর পরেই পরিবহণ দপ্তর সিদ্ধান্ত নিয়েছে, প্রতি ৬ মাস অন্তর চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে হবে। এর জন্য সরকারের তরফে যাবতীয় সাহায্যও করা হবে। বাস মালিকরা এই নিয়ম না মানলে নেওয়া হবে ব্যবস্থা। পুলিশের সঙ্গে পৃথক একটি নজরদারি কমিটি তৈরি হবে বলে ঠিক হয়েছে।

পরিবহণ মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী বলেন, ‘লাইসেন্স দেওয়ার সময়ে চোখ পরীক্ষা করা হলেও পরবর্তী সময়ে চালকরা অনেকেই এ বিষয়ে উদাসীন। তবে সরকারি বাসের চালকদের জন্য দপ্তরের তরফে চোখ পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়।’ কিন্তু বেসরকারি বাস মালিকরা মাথা ঘামান না এই সমস্যায়। তাই এই নিয়ম যাতে সকলে মেনে চলেন, সে জন্য দপ্তরের পক্ষ থেকে যা করণীয়, করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পরিবহণ মন্ত্রী।

You might also like!