kolkata

3 weeks ago

BJP: ২ লক্ষ কোটি চুরির হিসাব চাই বিজেপি,তুমুল হট্টগোল বিধানসভায়

Suvendu Adhikari
Suvendu Adhikari

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ সোমবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে দেখা করে কলকাতায় ফিরে শুভেন্দু অধিকারী বলেছিলেন, ‘অ্যাকশন হবে।’ ঘটনাচক্রে তার পর মঙ্গলবার সকাল থেকে গোটা রাজ্যে মোট ৬ জায়গায় অভিযানে নেমে পড়েছে ইডি। মূলত, একশ দিনের কাজে চুরির অভিযোগ নিয়ে এই তল্লাশি চলছে বলে খবর। ইডির সেই অভিযান চলাকালীন আবার রাজ্য বিধানসভায় ধুন্ধুমার ফেলে দিল বিজেপি। তাঁদের দাবি, ২ লক্ষ কোটি টাকা চুরি নিয়ে আলোচনা করতে দিতে হবে বিধানসভায়। 

মঙ্গলবার বিরোধীরা CAG রিপোর্ট নিয়ে আলোচনার দাবিতে মুলতুবি প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু তা খারিজ করে দেন স্পিকার। এর পর বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর (নেতৃত্বে বিজেপি বিধায়করা ওয়াকআউট করে বেরিয়ে আসেন। হাতে পোস্টার, মুখে স্লোগান। তাঁদের বিক্ষোভের জেরে তুমুল অশান্তি বিধানসভা চত্বরে।

রাজ্যের হিসেবনিকেশ নিয়ে কেন্দ্রের পাঠানো CAG রিপোর্ট দেখে আগেই ‘ডাহা মিথ্যা’ বলে উল্লেখ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের সমস্ত দাবি নস্যাৎ করেছেন। তা নিয়ে শাসক-বিরোধী লেগেই রয়েছে। এর মধ্যে এবার বিধানসভাতেও উঠল এই প্রসঙ্গ।

বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী জানান, ”আমরা চাই এই নিয়ে আলোচনা হোক। চলতি অধিবেশনে আরও দুটি বিষয় নিয়ে মুলতুবি প্রস্তাব আনা হবে। দিঘায় পর্যটক ধর্ষণের ঘটনা এবং চা শ্রমিকদের পাট্টা নয়, জমির অধিকার দিতে হবে।” এছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়েও সরব হবেন বিজেপি বিধায়করা (BJP MLA)। বিরোধী দলনেতা জানিয়েছেন, তাঁরা বাজেটে অংশ নেবেন। বাজেট বক্তৃতা শুনবেন। কিন্তু সেখানে যদি কোনও রাজনৈতিক আক্রমণ থাকে, তাহলে প্রতিবাদ জানানো হবে। সেই সঙ্গে উল্লেখপর্বে SC, ST নিয়ে বলবেন বিজেপি বিধায়ক কমলাকান্ত হাঁসদা।

এর পর ক্যাগ (CAG) রিপোর্ট নিয়ে মুলতুবি প্রস্তাব জমা দেয় বিজেপি। অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দেন, এই নিয়ে আলোচনা করা যাবে না। শুভেন্দু অধিকারী অধ্যক্ষকে প্রশ্ন করেন, ”কেন এই বিষয় নিয়ে আমরা আলোচনা করতে পারব না?” অধ্যক্ষ বলেন, ”এই বিষয়টি নিয়ে এখন বিধানসভায় আলোচনার কোনও প্রয়োজন নেই।” সঙ্গে সঙ্গে বিধানসভায় বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিজেপি বিধায়করা। প্রত্যেকের হাতেই ছিল একটা করে প্ল্যাকার্ড। তাতে লেখা, ক্যাগ রিপোর্ট নিয়ে তদন্ত চাই। স্লোগান দেন, ‘দুর্নীতিগ্রস্ত সরকার/আর নেই দরকার।’


You might also like!