kolkata

2 weeks ago

Lok Sabha Election 2024:সন্দেশখালিতে রাতের অন্ধকারে মহিলাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টার অভিযোগ,শুরু রুটমার্চ, কর্মীদের আশ্বস্ত করছে বিজেপি

Central forces route march in Trimani Bazar area of Sandeshkhali on Wednesday afternoon.
Central forces route march in Trimani Bazar area of Sandeshkhali on Wednesday afternoon.

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ সন্দেশখালি এলাকায় ভোট হতে এখনও দিন পনেরো বাকি। কিন্তু নতুন করে গোলমাল শুরু হওয়ায় সন্দেশখালি বিধানসভা এলাকার দু’টি পঞ্চায়েত, বেড়মজুর ১ ও ২-এ বুধবার থেকে রুটমার্চ শুরু করল কেন্দ্রীয় বাহিনী। গ্রামবাসীরা মনে করছেন, এর ফলে উত্তেজনা কিছুটা হলেও কমবে।

এবার রাতের অন্ধকারে প্রতিবাদী এক মহিলাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টার অভিযোগ উঠল! যদিও মহিলার বয়ানের সঙ্গে বাস্তবের কোনও মিল নেই দাবি করে তৃণমূলের বসিরহাট টাউন প্রেসিডেন্ট অভিজিৎ ঘোষের বক্তব্য, ভোটের আগে সন্দেশখালিতে উত্তপ্ত করতে নাটকের নতুন প্লট সাজাচ্ছে বিজেপি।

গত সোমবার থেকে ফের রাত পাহারা শুরু করেছেন সন্দেশখালির একাংশ মহিলা। বুধবার দুপুরে তাঁদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন বিজেপি নেত্রী তথা আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। রাতে যিনি দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে তাঁকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ এনেছেন, সেই মহিলাও বুধবার প্রিয়ঙ্কার সঙ্গে দেখা করেন।

সংবাদ মাধ্যমের ক্যামেরার সামনে ওই মহিলার অভিযোগ, "রাতে বাড়ির বাইরে কুকুরের ডাক শুনে বাইরে বের হই। তখনই কে যেন পিছন থেকে মুখ চেপে ধরে। জোর করে টানতে টানতে নিয়ে যাচ্ছিল। গ্রামের মাঠে অনেকগুলো কুকুর ছিল। তারা চিৎকার শুরু করতেই ওরা পালিয়ে যায়।"ওই মহিলার আরও অভিযোগ, "তৃণমূলের বিরুদ্ধে থানায় জানানো অভিযোগও তুলে নিতে চাপ দেওয়া হচ্ছে।"

সম্প্রতি সামনে এসেছে সন্দেশখালির স্টিং অপারেশনের ভিডিও।ভাইরাল ওই ভিডিওয় সন্দেশখালির বিজেপি নেতা গঙ্গাধর কয়ালকে বলতে শোনা গিয়েছে, সন্দেশখালির 'ধর্ষণের অভিযোগ সাজানো'। টাকা এবং মদের বিনিময়ে সমস্ত ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলেও ভিডিওতে দাবি করতে শোনা গিয়েছে তাঁকে।

ওই প্রসঙ্গ টেনে তৃণমূল নেতা অভিজিৎ বলেন, "এলাকায় অশান্তির পরিবেশ তৈরি করতে বিজেপি নতুন করে প্লট সাজাচ্ছে। তবে এসব করে ওরা বিশেষ সুবিধা করতে পারবে না। বাংলার মানুষ আসল সত্যটা জেনে গেছে।"

অন্যদিকে বিজেপির বসিরহাটের প্রার্থী রেখা পাত্রর অভিযোগ, রাতের অন্ধকারে সন্দেশখালির প্রতিবাদীদের মুখ বন্ধ করার চেষ্টা করছে তৃণমূল। পুলিশ অবশ্য জানিয়েছে, অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।


You might also like!