Game

3 weeks ago

Sports Festival: সীমান্ত চেতনা মঞ্চ পূৰ্বোত্তরের উদ্যোগে পাথারকান্দিতে সম্পন্ন ক্রীড়া মহোৎসব

Sports Festival (File Picture)
Sports Festival (File Picture)

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ পাথারকান্দি (অসম), ১০ ফেব্রুয়ারি: সীমান্ত চেতনা মঞ্চ পূৰ্বোত্তরের উদ্যোগে করিমগঞ্জ জেলার অন্তর্গত পাথারকান্দিতে সম্পন্ন হয়েছে বার্ষিক সীমান্ত ক্রীড়া মহোৎসব।

আজ পাথারকান্দির আদমটিলা খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত সমাপণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লঙ্গাই চা বাগানের ম্যানেজার অম্র পাল, উত্তর করিমগঞ্জের সভাপতি গৌতম দে সহ অতিথিগণ যথাক্রমে এস মণিহার সিংহ, সুজয় শ্যাম, জয়রাম সালিহা প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা সংযোজক ভরত সালিহা ও অভ্র পাল সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করে সমবেত কণ্ঠে সাংগঠিনক গীত পরিবেশন করেন। পরে প্রদীপ প্রজ্বলন, ভারত মাতা পূজন এবং অতিথি বরণ করা হয়। এস মণিহার সিংহ প্রতিযোগী খেলোয়াড়দের ক্রীড়াক্ষেত্রে সুনামের সঙ্গে প্রতিষ্ঠিত হতে ভালো করে অনুশীলন চালিয়ে যেতে আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, দেশের একতা অক্ষুণ্ণ রাখতে সীমান্ত চেতনা মঞ্চ গত তিন বছর ধরে বহু প্রতিকূলতা সত্ত্বেও সীমান্ত ক্রীড়া মহোৎসবের আয়োজন করে চলেছে। অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এ ধরনের আয়োজনের মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলের যুবক-যুবতীদের সুসংগঠিত, সুস্থ ও সামর্থ্যবান করে গড়ে তোলার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে মঞ্চ।

অন্য বছরের মতো এ বছরও অ্যাথলিট, কাবাডি, ফুটবল, খো-খো প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ বছর করিমগঞ্জ জেলা ভিত্তিক বাছাই পর্ব দুভাগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এগুলি ভাঙ্গা ব্লক, সাদারাশি ব্লক, লাতু ব্লক এবং করিমগঞ্জ শহর, বদরপুর শহর নিয়ে উত্তর করিমগঞ্জ জেলা ইতিমধ্যেই জেলার বাছাই পর্ব অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবার বুবরিঘাট ব্লক, কুকিতল ব্লক, লাঠিরঘাট ব্লক, পেঁচারপার ব্লক এবং পাথারকান্দি শহর নিয়ে দক্ষিণ করিমগঞ্জ জেলার বাছাই পর্ব আদমটিলা খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত অ্যাথলিটের মধ্যে উভয় পুরুষ ও মহিলাদের ১০০ মিটার, ২০০ মিটার, ৪০০ মিটার দৌড় এবং মহিলাদের ৮০০ মিটার রান ও পুরুষদের ১৫০০ মিটার দৌড়, পুরুষ ও মহিলা উভয়ের হাই জাম্প, লং জাম্প, জেবলিন থ্রো, ডিসকাস থ্রো, সনপুট থ্রো এবং কাবাডি, ফুটবল, খো-খো পুরুষ ও মহিলা উভয়ের জন্য বাছাই পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

অ্যাথলিটের ক্ষেত্রে ১৬ থেকে ১৯ বছর এবং ফুটবল, খো-খো, কাবাডির জন্য বয়োঃসীমা ১৬ থেকে ২১ বছর এর মধ্যে হয়ে গেছে। সকল প্রতিযোগিদের ই- সার্টিফিকেট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তাছাড়া বিজয়ী প্রতিযোগীরা রাজ্য ক্রীড়া মহোৎসবে যোগদানের সুযোগ পাবেন। এছর এখন পর্যন্ত ১৪৭ জন প্রতিযোগী ফর্ম পূরণ করে অংশগ্রহণ করেছেন।

You might also like!