Country

1 week ago

Kangana Ranaut News: কেন সপাটে চড়! মুখ খুললেন মহিলা CISF জওয়ান

Kangana Ranaut & Kulvindar Kaur
Kangana Ranaut & Kulvindar Kaur

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ কুলবিন্দর কউর। কঙ্গনা রানাউতকে থাপ্পড় মেরে রাতারাতি চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে এসেছেন এই CISF জওয়ান। চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে BJP-র সদ্য নির্বাচিত সাংসদকে চড় মারা নিয়ে এবার মুখ খুললেন তিনি।

অভিযুক্ত মহিলা CISF জওয়ান জানিয়েছেন, কঙ্গনা রানাউতের একটি পুরনো সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট নিয়ে তাঁর দীর্ঘদিনের রাগ ছিল। কুলবিন্দর কউর বলেন, 'উনি একটা বিবৃতি দিয়েছিলেন। তিনি দাবি করেছিলেন, কৃষকরা ১০০ টাকার লোভে আন্দোলনে বসেছে। তিনি কি নিজে গিয়ে সেখানে বসবেন? আমার মা সেখানে ছিলেন। কৃষকদের সঙ্গে তিনি আন্দোলনে সামিল হন।'

কুলবিন্দর কউর একজন কৃষক পরিবারের মেয়ে। কঙ্গনা রানাউতকে চড় মারার অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। ইতিমধ্যেই কর্মস্থল থেকে তিনি বহিষ্কৃত। কৃষক আন্দোলনকে অসম্মান করার জন্য তিনি কঙ্গনাকে থাপ্পড় মেরেছেন বলে স্বীকারোক্তি কুলবিন্দরের। এদিকে, ঘটনাকে 'পঞ্জাবে বাড়তে থাকা সন্ত্রাসবাদ এবং উদ্রপন্থা' বলে উল্লেখ করেছেন মাণ্ডির BJP সাংসদ।

কঙ্গনা রানাউত একটি ভিডিয়ো বার্তায় বলেন, ''ঘটনার পর থেকে মিডিয়া এবং শুভানুধ্যায়ীদের অনেক ফোন পাচ্ছি। সকলকে জানাচ্ছি, আমি নিরাপদে রয়েছি। সুস্থ রয়েছি। চণ্ডীগড় বিমানবন্দরে সিকিউরিটি চেকিংয়ের সময় এই ঘটনাটি ঘটে। চেকিংয়ের পর দ্বিতীয় কেবিনে দাঁড়িয়ে থাকা মহিলা জওয়ান আমায় থাপ্পড় মারেন। গালাগাল করতে শুরু করেন।' কঙ্গনার সংযোজন, 'আমি প্রশ্ন করি, তিনি কেন এমনটা করলেন? উনি নিজেকে কৃষক আন্দোলনের সমর্থনকারী বলেন উল্লেখ করেন। আমি নিরাপদ কিন্তু, পঞ্জাবে বাড়তে থাকা এই সন্ত্রাসবাদ এবং উগ্রপন্থা নিয়ে আমি উদ্বিগ্ন।'

চণ্ডীগড় বিমানবন্দরের এই ঘটনা জনৈক ব্যক্তি মোবাইল ক্যামেরায় বন্দি করেছিলেন। যা মুহূর্তের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। এই ঘটনা নিয়ে হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী নয়াব সিং সাইনি বলেন, 'একটি তন্দ্র ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে একজন নিরাপত্তাকর্মী এই ধরণের কাণ্ড ঘটিয়েছেন। যা হয়েছে ভুল হয়েছে।'

সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্সের (CISF) কর্মী কুলবিন্দর কউর কঙ্গনা রানাউতের ২০২০ সালে এক্স হ্যান্ডেলে করা একটি পোস্ট নিয়ে তিতিবিরক্ত ছিলেন। সে সময় দেশে কৃষক আন্দোলন চলছিল। সেই আবহে আন্দোলনরত কৃষকদের নিয়ে কঙ্গনার করা পোস্ট অসম্মানজনক বলে মন্তব্য করেন অভিযুক্ত মহিলা জওয়ান। বিতর্কিত সেই পোস্টে অভিনেত্রী সাংসদ কৃষকদের ধরনায় বসা এক প্রবীণ মহিলার ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছিলেন, '১০০ টাকায় পাওয়া যাবে।' পোস্ট মুহূর্তে ভাইরাল হয় এবং দেশজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। বাধ্য হয়ে সেটি ডিলিট করে ফেলতে হয় কঙ্গনাকে।

সেটাই প্রথম হয়, একাধিকবার কঙ্গনাকে কৃষক আন্দোলন বিরোধী নানা মন্তব্য করতে শোনা যায়। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে BJP সরকারের বিরুদ্ধে চলা ভারতের কৃষক আন্দোলন নিয়ে সরব হয়েছিলেন আন্তর্জাতিক পপস্টার রিহানা। তিনি বলেছিলেন, 'কেন এই আন্দোলন নিয়ে কথা বলা হচ্ছে না?' সেটির জবাবে কঙ্গনা লিখেছিলেন, 'এটা আন্দোলন নয় সন্ত্রাসবাদ। সে কারণেই এটা নিয়ে কেউ সরব নয়। এরা আসলে সন্ত্রাসবাদী। ভারত ভাগ করার চেষ্টা করছে। যাতে চিন ভগ্ন এই দেশে কব্জা করতে পারে।' সেই পোস্টও পরবর্তীতে মুছে ফেলতে হয় অভিনেত্রীকে।

২০২০-২১ সালে দেশে কৃষক আন্দোলন বড় প্রভাব ফেলেছিল। কেবলমাত্র ভারত নয়, এই আন্দোলন বিশ্বজুড়ে সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছিল। আন্দোলনরত কৃষকদের নিয়ে একাধিকবার কঙ্গনার মন্তব্য বিতর্ক তৈরি করে। একবার চণ্ডীগড়ে কঙ্গনার কনভয় আটকে বিক্ষোভও দেখিয়েছিলেন আন্দোলনরত কৃষকরা।

You might also like!