Country

1 week ago

Rain Update: লা নিনার খেল শুরু! অতিবৃষ্টির পূর্বাভাস, একাধিক রাজ্যে বন্যার আশঙ্কা

Rain Update (File Picture)
Rain Update (File Picture)

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ মাঝের কয়েক দিনের ঝড়বৃষ্টির পর দিল্লি সহ দেশের অনেক রাজ্যেই ফের তাপমাত্রার পারদ ঊর্ধ্বমূখী। এমন পরিস্থিতিতে আশার আলো দেখাচ্ছে IMD। আবহওয়া বিভাগ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার মে মাসের সবথেকে উষ্ণ দিন হতে চলেছে। এমন পরিস্থিতিতে আবারও নতুন করে গরম পড়তে চলেছে।

তবে এরই মধ্যে বর্ষা নিয়ে সুখবর দিয়েছে IMD। আবহাোয়া অধিদফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, চলতি বছরে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বৃষ্টি হবে দেশে। তবে অতিবৃষ্টির ফলে দেশের একাধিক রাজ্যে বন্যারও আশঙ্কা করেছেন আবহাওয়াবিদরা। আর এই অতিবৃষ্টির মূলে রয়েছে লা নিনা।


এল নিনোর পরে এবার লা নিনা-

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, শক্তিশালী এল নিনোর পরে লা নিনার প্রভাব দেখা যাবে। তবে এল নিনো থেকে সরাসরি লা নিনা পরিস্থিতি হয় না। তার মাঝে থাকে এনসো স্টেজ। আর ই এনসো স্টেজ তৈরি হতে চলেছে আগামী মাসে। জুন থেকে অগাস্টের মধ্যে লা নিনার সম্ভাবনা ৪৯ শতাংশ এবং জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে লা নিনার সম্ভাবনা ৬৯ শতাংশ বাড়বে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

অতিরিক্ত বৃষ্টিপাত, তীব্র শীত-

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, আগেকার লা নিনায় দেখা হিয়েছে বর্ষার মাসগুলিতে ভারতে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বেড়েছে। তাঁরা সতর্ক করছেন এবং বলেছেন, বৃষ্টিপাতের এই বৃদ্ধি নির্দিষ্ট কিছু অঞ্চলে বন্যার ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।

এর বিপরীতে এল নিনো যেমন ভারতে তীব্র গ্রীষ্ম এবং অতি দুর্বল বর্ষা নিয়ে এসেছিল, লা নিনা এর ঠিক উল্টো পরিস্থি তৈরি করবে। এটি উপমহাদেশে শক্তিশালী বর্ষা, গড়ের থেকে বেশি বৃষ্টিপাত এবং তীব্র শীতের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, এবারের বর্ষায় স্বাভাবিকের থেকে বেশি বৃষ্টি হবে। তাঁরা জানিয়েছেন, দেশের ৮০ শতাংশের বেশি জায়গায় জুন থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে ৮৭ সেন্টিমিটার অথবা তার থেকে বেশি বৃষ্টিপাত হবে। উল্লেখ্য, গত আট বছরের মধ্য এইবারই প্রথম আবহাওয়া দফতর বেশি বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে।

লা নিনা কী?

লা নিনা হল পূর্ব প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের উপরিভাগে বাতাসের চাপ কম থাকলে এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় যাকে বলা হয় লা নিনা। এটি একটি স্প্যানিশ শব্দ। এর অর্থ ‘দুষ্টু বালিকা’। লা নিনার পরিস্থিতি যখন দেখা দেয় তখন সমুদ্রপৃষ্ঠের তাপমাত্রা উল্লেখযোগ্যভাবে কমে যায়। যা সারা বিশ্বের তাপমাত্রাকে প্রভাবিত করে। এবছর জুন থেকেই ভারতে লা নিনার প্রভাব দেখা যাবে। আর এর প্রভাবে শুধু বেশি বৃষ্টিই নয়, বেশি ঠান্ডা পড়ারও সম্ভাবনা বেড়ে যায়। লা নিনা মূলত নয় থেকে এক বছর পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।

লা নিনার প্রভাবে দেশে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে-

আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লা নিনার প্রভাব আগামী কয়েক মাসের মধ্যে প্রশান্ত মহাসাগরে দেখা যাবে। ফলে জুন থেকেই শুরু হবে বেশি বৃষ্টি। আর এই অতিবৃষ্টির কারণে দেশের অনেক রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।

এবার বর্ষায় গড়ের চেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হলেও আগের বর্ষার দিকে তাকালে দেখা যায় গত বছর ৯৪ শতাংশ কম বৃষ্টি হয়েছিল।


You might also like!