Cooking

3 months ago

Chirer Khichuri: বাড়িতে বানিয়ে ফেলুন ঠাকুর বাড়ির স্টাইলের চিঁড়ের খিচুড়ি

Chinrer Polao Recipe (File Picture)
Chinrer Polao Recipe (File Picture)

 

দুরন্ত বার্তা ডিজিটাল ডেস্কঃ আজ দেখে নিতে পারেন ঠাকুর বাড়ির স্টাইলের চিঁড়ের খিছুরি। যার স্বাদ মুখে লেগে থাকবে। আসুন দেখে নেওয়া যাক রেসিপি।  

চিঁড়ে- ৪ কাপ

সোনা মুগের ডাল- দেড় কাপের চেয়ে সামান্য বেশি

ঘি- প্রয়োজনমতো

পেঁয়াজ কুচি- ১টি

আদা কুচি- ১ ইঞ্চ

কাঁচালঙ্কা- ৩-৪টি

টোম্যাটো- ১টি মাঝারি সাইজের (অপশনাল)

কড়াই শুঁটি- ১/২ কাপ (অপশনাল)

এলাচ গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ

দারচিনি- ১/২ ইঞ্চ

তেজপাতা- ২টি

শুকনো লঙ্কা- ৩টি

হলুদ- ১ চা চামচ

ভাজা জিরের গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ

ভাজা ধনে গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ

ভাজা মৌরির গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ

কিশমিশ- প্রয়োজন মতো

কাজু- প্রয়োজনমতো

নুন- স্বাদমতো

চিনি- স্বাদমতো

নারকেল কোরা- ১/২ কাপ

প্রণালী

চিঁড়ের খিচুড়ি রান্না করতে গেলে শক্ত চিঁড়ে নেবেন। নরম চিঁড়ে গলে গিয়ে খেতে ভালো লাগবে না। চিঁড়ে ধুয়ে খুব ভালো করে জল ঝরিয়ে নিন।

সোনা মুগের ডাল (না থাকলে এমনি মুগের ডালও ব্যবহার করতে পারেন) শুকনো খোলায় ভেজে নিন। ভাজা ডাল সামান্য হলুদ দিয়ে মোটামুটি সিদ্ধ করে নিন। একেবারে গলে যেন না যায়। সিদ্ধ ডালের অতিরিক্ত জল ঝরিয়ে নিন।

ডাল ঠান্ডা হয়ে এলে চিঁড়ের সঙ্গে মেখে নিন। সঙ্গে মেশান পরিমাণ মতো নুন এবং চিনি।

পেঁয়াজ ঝিরি ঝিরি করে কেটে নিন। আদা মিহি এবং লম্বা লম্বা করে কুচিয়ে নিন।

টোম্যাটো ছোটো করে টুকরো করে নিন।

যদি কড়াইশুঁটি দেন, তাহলে আলাদা করে সিদ্ধ করে নিন।

দারচিনি থেঁতো করে নিন।

পুরো রান্নাটা ঘি দিয়ে হলেই ভালো। এবার কড়াইয়ে পরিমাণ মতো ঘি গরম করুন।

ঘিতে পেঁয়াজ কুচি এবং আদা কুচি দিয়ে ভাজুন।

এর মধ্যে দিয়ে দিন তেজপাতা এবং শুকনো লঙ্কা।

ভাজতে ভাজতে এতে থেঁতো করা দারচিনি এবং এলাচ গুঁড়ো দিয়ে নাড়তে থাকুন।

এতে টোম্যাটোর টুকরো এবং কাঁচা লঙ্কা দিয়ে নাড়াচাড়া করতে থাকুন।

এবার সামান্য নুন দিয়ে কষান। দিয়ে দিন হলুদ গুঁড়ো, ভাজা জিরার গুঁড়ো, ভাজা ধনে গুঁড়ো এবং ভাজা মৌরির গুঁড়ো। নাড়াচাড়া করতে থাকুন।

মশলা ভালো করে কষা হয়ে গেলে এতে কড়াইশুঁটি, কাজু এবং কিশমিশ দিয়ে মিশিয়ে নিন।

এবার চিঁড়ে এবং ডালের মিশ্রণ দিয়ে হালকা হাতে নাড়ুন।

চিঁড়ের মিশ্রণ ভাজতে থাকুন। ভালো করে ভাজা হয়ে এলে এতে ঘি ছড়িয়ে দিন।

সব শেষে উপরে নারকেল কোরা ছড়িয়ে দিন। চাইলে ধনে পাতা কুচিও দিতে পারেন।

চিঁড়ের খিচুড়ির স্বাদ অসাধারণ। এর সঙ্গে অন্য কোনও ভাজা বা তরকারি লাগে না। শুধুই খাওয়া যায়। জলখাবার, লাঞ্চ বা ডিনার যে কোনও সময়ই এটি অসাধারণ। স্কুল, কলেজ, অফিসের টিফিন হিসেবেও চিঁড়ের খিচুড়ি একটি দারুণ অপশন।

You might also like!